1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০১ অপরাহ্ন

এমপি হওয়ার খায়েশে কখনো সিলেট-৩ আবার কখনো হবিগঞ্জে ছোটাছুটি আতিকের

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১
  • ৬৫৮ বার পঠিত
সিলেটের খোজখবর ডেস্কঃ কঠোর সমালোচনার মুখে পড়েছেন সিলেট-৩ আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী আতিকুর রহমান আতিক। সমালোচনার কারণ, অনেক। তবে মনোনয়নপত্র দাখিলের পরপরই নির্বাচনী এলাকা ছেড়ে যাওয়া ও সরকারি দল আওয়ামী লীগের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিবের বিরুদ্ধে ‘দ্বৈত নাগরিকত্ব’ নিয়ে চ্যালেঞ্জ এবং তা প্রমাণে ব্যর্থতার বিষয়টিই মুখ্য। গোটা নির্বাচনী এলাকাজুড়েই চলছে এ সমালোচনা।
জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনে লাঙল নিয়ে লড়তে আসা আতিকুর রহমান আতিক তার মনোনয়নপত্র দাখিলের পর থেকে আর নির্বাচনী এলাকায় নেই। এমনকি তিনি সিলেটের বাইরে অবস্থান করছেন বলে জানা গেছে। তার এই না থাকা নিয়ে যেমন সমালোচনা হচ্ছে, তেমনি এর কারণ নিয়েও চলছে নানা ফিসফাস।
বিভিন্ন দলের রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের মনে শক্ত ধারণা, আওয়ামী লীগের তুরুণ তুর্কি হাবিবুর রহমান হাবিবকে নির্বাচন থেকে ছিটকে ফেলার অপচেষ্টায় তিনি রীতিমতো উঠে পড়ে লেগেছেন।
আর তাই রিটার্নিং অফিসারের কাছে হাবিবের বিরুদ্ধে তার তোলা ‘দ্বৈত নাগরিকত্ব’র অভিযোগ খারিজ হওয়ার পর তিনি ছুটে গিয়েছেন ঢাকায়। নির্বাচন কমিশনে আপিল করেছিলেন। কিন্তু তাতেও তিনি ব্যর্থ। তার অভিযোগের সপক্ষে কোন প্রমাণ দিতে পারেন নি।
স্থানীয় সচেতন মহল বিষয়টিকে মোটেও ভালোভাবে নেননি। তাদের প্রশ্ন, একজন সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী হিসাবে আতিক পর্যাপ্ত প্রমাণ হাতে না থাকা সত্ত্বেও প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থীর বিরুদ্ধে বারবার অভিযোগ তুলছেন বা আপিল করছেন কেন?
তাহলে কি হাবিবকে ভয় পেয়ে সরাসরি ভোটের লড়াই থেকে হটিয়ে ফাঁকা মাঠে গোল দিতে চাইছিলেন তিনি? সে আশায় গুড়েবালি। নির্বাচনী এলাকার হাটে মাঠে এই ইস্যুতে এখন চা’র কাপে তুফান ছুটছে। কেউ কেউ এমনও বলছেন, আতিক নির্বাচিত হলে স্থানীয়রা তার কতটুকু সাহচর্য পাবেন- এ থেকেই কিছুটা ধারণা পাওয়া যায়।
আরেকটি বিষয়ে জাপা প্রার্থীর জোর সমালোচানা চলছে। সেটি হচ্ছে, তার নির্বাচনী এলাকা নিয়ে। গত সংসদ নির্বাচনেও আতিকু রহমান আতিক হবিগঞ্জের একটি আসন থেকে লাঙল নিয়ে প্রার্থী হয়েছিলেন। কিন্তু সংসদে যাওয়া হয়নি। ভোটাররা তাকে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।
সিলেট-৩ আসন ছেড়ে দিয়ে যিনি এমপি হওয়ার খায়েশে ছুটে গিয়েছিলেন হবিগঞ্জে- এখন আবার কোন মুখে তিনি ফিরে এলেন এই আসনে- এমন প্রশ্নও তুলছেন সচেতন ভোটাররা। তার বাড়ি দক্ষিণ সুরমার মোগলাবাজারে। এমপি হওয়ার জন্য তার এই ছটফটানি, কখনো সিলেট-৩ আর কখনো হবিগঞ্জে প্রার্থী হওয়ার বিষয়টিও মানতে পারছেন না সাধারণ ভোটাররা।
এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দক্ষিণ সুরমা উপজেলা জাতীয় পার্টির একটি নির্ভযোগ্য সূত্র জানায়, পর্যাপ্ত ডকুমেন্ট ছাড়া হাবিবের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে আতিকের প্রাথমিক একটা পরাজয় হয়েই গেছে।
এতে নৌকার প্রার্থী হাবিবের প্রতি মানুষের সমবেদনা আরও গভীর হয়েছে। এর ফায়দা লুটবে আওয়ামী লীগ। আর নিজে নির্বাচনী এলাকা ছেড়ে এই যে বাইরে বাইরে আছেন, এটিও লোকজন স্বাভাবিকভাবে নিচ্ছেনা। এসময়ে তিনি এলাকায় থাকলে পার্টির কর্মী সমর্থকদের মনোবল আরও বাড়তো।
কেন জাপা প্রার্থী এলাকায় নেই? বা কেন তিনি কখনো সিলেটে বা কখনো হবিগঞ্জে এমপি হতে ছুটাছুটি করেন? সিলেট-৩ ছেড়ে হবিগঞ্জেই বা কেন প্রার্থী হয়েছিলেন- ইত্যাদি প্রশ্নের জবাব খুঁজতে আতিকুর রহমান আতিকের মোবাইলে কল দিলেও তিনি তা রিসিভ করেন নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2021 sylheter kuj khobor.com
Theme Customized By BreakingNews