1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৫:০৮ অপরাহ্ন

ছাতকে উপজেলা প্রশাসনিক ভবন নির্মাণে অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ

  • আপডেট সময় : রবিবার, ২৩ মে, ২০২১
  • ১৭৮ বার পঠিত

খোজখখবর ডেস্কঃ ছাতকে উপজেলা সম্প্রসারিত প্রশাসনিক ভবন ও হলরুম নির্মাণ কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভেযোগ ওঠেছে। নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী দিয়ে পাইলিংয়ের পিলার নির্মাণ করার ফলে পাইলিংয়ের সময় পিলারগুলো ভেঙ্গে যাচ্ছে।

পিলার নির্মাণের সময়ও নিম্নমানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছিলো। সেসময় কয়েকদিন নির্মাণকাজ বন্ধ রেখে আবারো ঠিকাদার নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে পিলার নির্মাণ করেছে। ফলে পিলারগুলো পোতার আগেই ভেঙ্গে যাচ্ছে। উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবন ও হলরুম নির্মাণে পাইলিংয়ের কাজ (পিলার পোতা) করছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স এম আই ট্রেডিং এন্ড কোম্পানি।

অভিযোগ রয়েছে উপজেলা পরিষদ চত্বরে নিম্নমানের বালু-পাথর ও জং ধরা রড দিয়ে রাতের বেলা কাজ করে তারা পিলার নির্মাণ করেছে। কার্যাদেশ বহির্ভূতভাবে বালু-পাথর, সিমেন্ট ব্যবহার করেছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন। টিলার নিম্নমানের ও স্বল্প মূল্যের মরা লাল পাথর ব্যবহার হয়েছে পাইলিংয়ের পিলার নির্মাণে। ইতিমধ্যেই ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের প্রায় ১৮০ টি পিলার নির্মাণ করে পাইলিং কাজ শুরু করেছে। পাইলিং কাজের প্রথম দিকেই ক’টি পিলার ভেঙ্গে গেছে। এতে করে এখানে হৈচৈ শুরু হলে তারা কাজটি আবারো বন্ধ করে দেয়। ভাঙ্গা পিলারের অংশবিশেষ দ্রুত ট্রাকে করে অন্যত্র সরিয়ে নিয়ে যায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন।
স্থানীয়দের অভিযোগ, পিলার নির্মাণের সময় রাতের বেলা কাজ করেছে তারা। পিলার নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রীর সাথে সিমেন্টের ব্যবহারও কম হয়েছে বলে স্থানীয়দের অভিযোগ রয়েছে। ফলে পিলারগুলো ভেঙ্গে যাচ্ছে। এতে করে এখানে ভবন নির্মিত হলে এর স্থায়িত্ব কম হবে। উপজেলা পরিষদ চত্বরে এরকম অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয় নিয়ে উপজেলা প্রকৌশল বিভাগের কোনো তদারকি পরিলক্ষিত হয়নি বলেও তারা অভিযোগ করেন। স্থানীয় একাধিক ঠিকাদারের সাথে আলোচনা হলে তারা এখানে নিম্নমানের কাজ হচ্ছে বলে স্বীকার করেছেন।

ছাতক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ফজলুর রহমান জানান, নির্মাণকাজে অনিয়ম ও দুর্নীতির বিষয়ে সংসদ সদস্য, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও উপজেলা ইঞ্জিনিয়ারকে অবহিত করেছেন তিনি কয়েকবার।

পৌর কাউন্সিলর জসিম উদ্দিন সুমনের অভিযোগ, উপজেলা সম্প্রসারিত ভবন ও হলরুম নির্মাণকাজের মূল থেকেই অনিয়ম ও দুর্নীতি হচ্ছে। গত শুক্রবার থেকে মেসার্স এম আই ট্রেডিং এন্ড কোম্পানি ওই নিম্নমানের পিলার দিয়ে আবারো পাইলিংয়ের কাজ শুরু করেছে। স্থানীয়রা একাধিকবার এ নিয়ে আপত্তি করলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান দ্রুত নিম্নমানের মালামাল সরিয়ে নিয়ে যায়। দু’একদিন পর ওই মালামাল এনে তারা আবারো কাজ শুরু করে। কাজের শুরু থেকেই এ ধরণের ছয়-নয় করে যাচ্ছে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। ছাতক উপজেলা পরিষদের সম্প্রসারিত ভবন ও হলরুম নির্মাণ কাজে ৬ কোটি ৬ লাখ ৪২ হাজার ৭৭১ টাকার বরাদ্দ রয়েছে। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে ইতিমধ্যে ১৮০টি পাইলিং পিলার তৈরি হয়ে যাওয়ায় পুরো কাজের গুনগত মান নিয়ে শংকা দেখা দিয়েছে। পাইলিংয়ের সময়ে ক’টি পিলারও ভেঙ্গেছে বলে একাধিক লোকজন জানিয়েছেন। নির্মাণকাজে এহেন দুর্নীতি ও অনিয়মের জন্যে স্থানীয় এলজিইডি বিভাগের উদাসীনতাকেই দায়ী করেছেন অনেকেই।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মামুনুর রহমান জানান, নির্মাণকাজে অনিয়মের বিষয়ে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা প্রকৌশলীর সাথে বৈঠক করে আগামীতে অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেলে নির্মাণ কাজ বন্ধ করে দেয়া হবে বলে তিনি ইতিমধ্যে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2021 sylheter kuj khobor.com
Theme Customized By BreakingNews