1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:০৪ অপরাহ্ন

ধীরাজ পালকে ১৬ মিনিটে কুপিয়ে হত্যা: পুলিশ

  • আপডেট সময় : রবিবার, ৩০ মে, ২০২১
  • ২১০ বার পঠিত

সিলেটের খোজখবর ডেস্কঃ সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার গহরপুরে ইটভাটার ব্যবস্থাপক ধীরাজ পালকে (৬০) তার দপ্তরেই কুপিয়ে ১৬ মিনিটের মধ্যে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার পুলিশের পক্ষ থেকে এই তথ্য জানানো হয়েছে। এর আগে শুক্রবার বেলা পৌনে দুইটার দিকে ধীরাজ পালকে হত্যার ঘটনা ঘটে।

জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সার্কেল) রফিকুল ইসলাম বলেন, ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বেলা ১টা ৩৫ মিনিট থেকে ১টা ৫১ মিনিটের মধ্যে। প্রায় ১৬ মিনিটের মধ্যে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে, এ বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে।তিনি আরও বলেন, ‘আমরা শুক্রবার বিকেল থেকে তদন্তে নামি। ছয়জনকে আটক করে রাতভর জিজ্ঞাসাবাদ করেও কোনো সূত্র পাইনি। ধারণা করছি, জানাশোনা কেউ হত্যার সঙ্গে জড়িত। তবে এ বিষয়েও সুনির্দিষ্ট করে কিছু পাওয়া যায়নি।’

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বন্ধের দিন থাকায় ইটভাটায় কোনো শ্রমিক কর্মরত ছিলেন না। ধীরাজ পাল একা ব্যবস্থাপকের দপ্তরে ছিলেন। বেলা দুইটার দিকে ইটভাটায় এসে ধীরাজকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখতে পান ইটভাটার সহকারী ব্যবস্থাপক মিনুর মিয়া। এ সময় ইটভাটা পরিচালনায় থাকা আরও একজনকে সঙ্গে নিয়ে ধীরাজকে উদ্ধার করে সিএনজিচালিত অটোরিকশা দিয়ে সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান তারা।

সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, ঘটনাস্থলেই ধীরাজ মারা গেছেন।ইটভাটার সহকারী ব্যবস্থাপক মিনুর মিয়া বলেন, ইটভাটার পাশের একটি মসজিদে জুমার নামাজ পড়ে ব্যবস্থাপকের দপ্তরে গিয়ে তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় দেখেন। এ সময় ইটভাটার ক্যাশবাক্স ভাঙা দেখা গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, ক্যাশবাক্স লুট করতেই ব্যবস্থাপককে কুপিয়েছে অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা।

ধীরাজের মাথার পেছনে উপর্যুপরি কোপ ও পায়ের দুইটি স্থানে ক্ষত পাওয়া গেছে।তদন্তসংশ্লিষ্ট পুলিশ বলছে, ইটভাটাটি চারজন অংশীদার মালিকের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে। ধীরাজ পাল সেখানে প্রায় আট বছর ধরে ব্যবস্থাপক পদে কর্মরত আছেন। মালিকপক্ষসহ ইটভাটার সহকারী ব্যবস্থাপক ও লাশ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া ছয়জনকে শুক্রবার রাতে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। কিন্তু তাদের কথাবার্তা থেকে সন্দেহজনক কিছু পাওয়া যায়নি।

ধীরাজ পাল সিলেটের দক্ষিণ সুরমার আলমপুর গ্রামের বাসিন্দা। পরিবারের সদস্যরা ধীরাজের সঙ্গে কারও পূর্বশত্রুতার কোনো তথ্য দিতে পারছেন না।

এ ব্যাপারে বালাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নাজমুল হাসান বলেন, গতকাল শনিবার দুপুরে ধীরাজের মরদেহের ময়না তদন্ত সম্পন্ন হওয়ার পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। পরে বিকেলে লাশ সৎকারের করা হয়। গতকাল রাতেই তার পরিবারের পক্ষ থেকে এজাহার জমা দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2021 sylheter kuj khobor.com
Theme Customized By BreakingNews