1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ১১:১৯ পূর্বাহ্ন

বিয়ের প্রলোভনে কিশোরগঞ্জ থেকে সিলেটে এনে নারীকে গণধর্ষণ

  • আপডেট সময় : বুধবার, ১৪ জুলাই, ২০২১
  • ১৮০ বার পঠিত

ডেস্কঃ প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে ভৈরবের নারীকে (২৫) সিলেটে নিয়ে এসে ৯ জন মিলে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণের অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার তাদেরকে ধর্ষণ মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, জাবেদ আহমদ (৩৬), ফয়সল আহমদ (২২), রাসেল আহমদ (২৪) ও জামিল আহমদ (২২)। বিষয়টি নিশ্চিত করেন এয়ারপোর্ট থানার ওসি মাইনুল জাকির।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, কিশোরগঞ্জের ভৈরবের ওই নারীর সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ হয় সিলেটের জাবেদ আহমদ। আলাপের এক জাবেদ তাকে প্রেম ও বিয়ের প্রস্তাব দেন।

জাবেদের কথায় গত ১০ জুলাই সন্ধ্যায় বাড়ি ছেড়ে তিনি সিলেটের দক্ষিণ সুরমার হুমায়ন রশিদ চত্বরে আসেন। সেখান থেকে নিজের বাড়িতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে জাবেদ তাকে খাদিমনগর বুরজান চা-বাগানের মরাকোণা টিলার উপর একটি ছাউনি ভিতর নিয়ে যান। সেখানে আগে থেকেই ছিলেন ফয়সল আহমদ, রাসেল আহমদ, জামিল আহমদ নামে তিনজন। পরে চারজন ভয় দেখিয়ে ওই নারীকে উপর্যোরি ধর্ষণ করে। টানা তিন দিন তারা চারজন মিলে তাকে ধর্ষণ করে। জাবেদ তার মোবাইল ফোনসহ ব্যাগে ভর্তি কাপড় ও দরকারী কাগজপত্রও ছিনিয়ে নেন।

এজাহারে ওই নারী আরও অভিযোগ করেন, ১৩ জুলাই সকাল অনুমান ৬ টার দিকে রুবেল (২৫), ইমাম (২৫), ফারুক (২৩), মো. মোশাহিদ আহমদ (২৭) ও আবুল (২৬) নামে পাঁচ ব্যক্তি সেখানে যান। তখন জাবেদসহ অন্যরা ওই পাঁচ জনের কাছে তাকে সমঝিয়ে দিয়ে চলে যায়। এরপর ওই পাঁচ ব্যক্তি পালাক্রমে তাকে ধর্ষণ করে।

ধর্ষণের পর মঙ্গলবার সকাল ১১ টার দিকে তাকে ফেলে সবাই চলে গেলে চা বাগানের ওই নির্জন স্থান থেকে বেরিয়ে আসেন ওই নারী। এরপর রাস্তায় একজন লোকের সহায়তায় নিজের খালাতো বোনকে ফোন দিয়ে বিস্তারিত জানান।

সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া অফিসার অতিরিক্ত উপ-কমিশনার বিএম আশরাফ উল্লাহ তাহের জানান, মঙ্গলবার বিকেলে এয়ারপোর্ট থানায় ওই নারী মৌখিক অভিযোগ দেন। তার অভিযোগের ভিত্তিতে বুরজান চা বাগান থেকে জাবেদ জাবেদ ও মোশাহিদকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ফয়সল আহমদ ও রাসেল আহমদকে আটক করা হয়।

আশরাফউল্লাহ তাহের বলেন, ধর্ষণের শিকার নারী বুধবার মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় এই ৪ জনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। অভিযুক্ত বাকী ৫ জনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। তিনি বলেন, অভিযোগকারী নারীকে চিকিৎসার জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে ভর্তি করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2021 sylheter kuj khobor.com
Theme Customized By BreakingNews