1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, ০৬:৫০ অপরাহ্ন

সিলেটে করোনায় আস্তে আস্তে ভয়ঙ্কর রুপ নিচ্ছে

  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন, ২০২১
  • ১৪৯ বার পঠিত

সিলেটে দিনে দিনে করোনা পরিস্থিতি ফের ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে। গত প্রায় একমাস থেকে প্রতিদিন গড়ে ২০ জন করে রোগী ভর্তি হচ্ছেন করোনা চিকিৎসার জন্য সিলেটের বিশেষায়িত শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে।

হাসপাতালটির আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. সুশান্ত কুমার মহাপাত্র জানান, এভাবে চলতে থাকলে আগামী ৫/৬ দিনের মধ্যে হাসপাতালটির সব সিট পূর্ণ হয়ে যাবে।

গেলো রমজানে নানা বাধানিষেধ অমান্য করেও সিলেটের নাগরিকবৃন্দ হুমড়ি খেয়ে পড়েছিলেন কেনাকাটায়। বিশেষজ্ঞরা তখন থেকেই বারবার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। তাদের আশঙ্কা ছিল, স্বাস্থ্যবিধির তোয়াক্কা না করে এই লাগামহীন চলাফেরা আর কেনাকাটার খেসারত দিতে হতে পারে।

বাস্তবতাও তাই। ঈদের পর থেকে করোনা শনাক্তের হার বাড়তে থাকে সিলেট বিভাগজুড়ে। গত ২০/২১ দিন থেকে গড়ে প্রতিদিন করোনার জন্য বিশেষায়িত শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে গড়ে প্রায় ২০ জন রোগী ভর্তি হচ্ছেন। আর ছাড়া পাচ্ছেন ১৩/১৪ জন।

আবার সোমবার সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত সিলেট বিভাগে কভিড-১৯ শনাক্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা ১২৩! বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত শনাক্তকৃতের সংখ্যা ১২২। আর বৃহস্পতিবার সকাল ৮ পর্যন্ত সংখ্যাটা গত দু’দিনকেও ছাড়িয়ে গেছে। এসময়ে শনাক্ত হয়েছেন আরও ১২৫ জন।  আর গত ২৪ ঘন্টায় করোনায় সিলেট বিভাগে মৃত্যু হয়েছে আরও ৪ জনের।  তারা সবাই সিলেট জেলার অধিবাসী।

এদিকে সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে বুধবার ১৬ ও বৃহস্পতিবার ১১ জন করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি হলেও শামসুদ্দিন হাসপাতালে গড়ে প্রতিদিন ২০ জন করে রোগী ভর্তি হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন এ হাসপতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার।

এ অবস্থায় সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে সম্প্রতি সিলেটের সিভিল সার্জন, ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকসহ সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীলরা এক বৈঠকে মিলিত হন। বৈঠকে সার্বিক পরিস্থিতি মূল্যায়ন করা হয় এবং পরিস্থিতির আরও অবনতি হলে করনীয় নির্ধারণ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে বলে বৈঠকে উপস্থিত একটি সূত্র জানায়।

জানা গেছে, শহীদ শামসুদ্দিন হাসপাতালে করোনা রোগীদের চিকিৎসার  জন্য আইসিইউসহ মোট বেড আছে ৯৪টি। এরমধ্যে ১৭টি আইসিউ বেড। গত প্রায় ২০ দিন থেকে প্রতিদিনই এই হাসপতালে ভর্তির সংখ্যা বাড়ছে।

হাসপাতালটির আবাসিক মেডিকেল অফিসার ( আরএমও) ডাক্তার সুশান্ত কুমার মহাপাত্র জানান, বর্তমান হারে রোগী ভর্তির সংখ্যা বাড়তে থাকলে আগামী ৫/৬ দিনের মধ্যে শামসুদ্দিনের বেড পূর্ণ হয়ে যাবে। তবে পরিস্থিতি মোকাবেলায় তারা প্রস্তুত বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আবারও সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার উদাত্ত আহ্বান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2021 sylheter kuj khobor.com
Theme Customized By BreakingNews