1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:৪৫ অপরাহ্ন

সিলেটে বালুচর এলাকায় নারীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় কথিত স্বামী রিমান্ডে

সিলেটের খোঁজখবর
  • আপডেট সময় : শুক্রবার, ২৬ আগস্ট, ২০২২
  • ১০২ বার পঠিত

সিলেট নগরের বালুচর এলাকা থেকে আফিয়া বেগম (৩০) নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধারের ঘটনায় ওই নারীর কথিত স্বামী ইসমাইল নিয়াজ খানকে চারদিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। এর আগে বুধবার (২৪ আগস্ট) রাতে নগরের দক্ষিণ সুরমার বড়ইকান্দি এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বৃহস্পতিবার (২৫ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৪টায় সিলেট মহানগর পুলিশের শাহপরাণ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আনিসুর রহমান  এ তথ্য জানিয়েছেন।

ওসি বলেন, গ্রেফতার ইসমাইল নিয়াজ খানকে বৃহস্পতিবার বিকেলে সিলেট মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করে পাঁচদিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। পরে বিচারক তার চারদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন। আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় আনা হচ্ছে। আশা করছি, রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচিত হবে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরও বলেন, হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে মুন্নি নামে একজন নারী জড়িত। তিনি ঘটনার দিন বালুচরের ওই বাসায় বাইরে থেকে তালা দিয়ে পালিয়ে যান। বিষয়টি আমরা সিসিটিভি ফুটেজ দেখে নিশ্চিত হয়েছি। তাকে আমরা খুঁজছি। মুন্নির সঙ্গে গ্রেফতার ইসমাইল নিয়াজ খানের একটা যোগসূত্র রয়েছে।

এর আগে গত মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) রাতে সিলেট নগরের শাহপরাণ থানার বালুচর এলাকা থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নগরের বালুচরে ফোকাস-৩৬৪ সেকান্দার মহলের পাঁচতলার বাসার নিচতলায় মেয়েকে নিয়ে থাকতেন আফিয়া বেগম। মঙ্গলবার রাতে বাসার ভেতর থেকে দুর্গন্ধ বের হওয়ায় অন্য ফ্ল্যাটের বাসিন্দাদের সন্দেহ হয়। এসময় বাসার দরজা বাইরে থেকে বন্ধ দেখতে পেয়ে তারা পুলিশে খবর দেন।

পুলিশ এসে তালা ভেঙে খাটের ওপর ওই নারীর মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে। এসময় ঘরের ভেতর থেকে ওই নারীর প্রায় দুই বছর বয়সী এক শিশুকন্যাকে জীবিত উদ্ধার কর হয়। পরে ওই শিশুকে ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা স্নেহাশীষ পৈত্য বলেন, ওই নারীর স্বামী ওমান প্রবাসী বলে শোনা গেলেও আসলে ইসমাইল প্রবাসে ছিলেন না। আফিয়ার সঙ্গে তার যে বিয়ে, সেটার কাগজপত্রও নেই। মৌলভি ডেকে নাকি তাদের বিয়ে পড়ানো হয়েছিল। এছাড়া আশরাফ নামে এক ব্যক্তির সঙ্গে আফিয়ার আগে আরেকটি বিয়ে হয়েছিল বলে জানা গেছে। কিন্তু ওই সংসার বেশিদিন টেকেনি




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর










x