1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
রবিবার, ২৬ জুন ২০২২, ০৮:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা তাঁতী লীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণঃ সিলেট জেলা তাঁতী লীগের কার্যকরী কমিটির জরুরী সভা অনুষ্ঠিতঃ মিডিয়া বলে না? আমি বলি! আওয়ামী লীগের ৭৩তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে জেলা তাঁতী লীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণঃ হেলিকপ্টারযোগে বন্যাকবলিত এলাকা পরিদর্শনে প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সিলেটবাসীর দুঃসময়ে পাশে রয়েছেন: হাবিবুর রহমান হাবিব প্রধানমন্ত্রী আসছেন মঙ্গলবার, হেলিকপ্টারে ঘুরে দেখবেন বন্যা পরিস্থিতি সিলেট অঞ্চলে বন্যার পানি নেমে যেতে এক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে ডাকাত আতঙ্ক: গুজবকারীদের চিহ্নিত করা হচ্ছে ফেঞ্চুগঞ্জে বন্যার ভয়াবহ রূপ,৩০ হাজার পরিবার পানিবন্দি

সিলেট উপশহর মূল সড়কে কোমর সমান পানি চলাচলের প্রধান বাহন ‘নৌকা’

সিলেটের খোঁজখবর
  • আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২
  • ৯৫ বার পঠিত
ফা্ইল ছবি

টানা কয়েকদিনের বৃষ্টিতে ও ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে সিলেট নগরসহ পুরো জেলায় বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হয়েছে। সিলেটের অভিজাত এলাকা হিসেবে পরিচিত উপশহর। বর্ষা এলেই বিপাকে পড়েন এই অভিজাত এলাকার মানুষ।শিকার হন জলাবদ্ধতার। তবে এবার ওই এলাকায় বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে রাস্তাঘাট। পানি জমে উঠে পড়েছে বাসা-বাড়ি, দোকানপাট ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে। এবার ওই এলাকায় চালাচলের প্রধান বাহন হিসেবে নৌকাকে বেছে নিচ্ছেন সেখানকার বাসিন্দারা।

জানা যায়,  সুরমা নদী উপচে নগরেই হাঁটু সমান পানি হয়েছে। বাসাবাড়ি ও ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানেও পানি উঠছে। গত সোমবার (১৬ মে) দুপুর ১২টা থেকে সিলেট নগরের নিম্নাঞ্চলগুলোতে পানি প্রবেশ করতে শুরু করে। মঙ্গলবার নগরের প্রায় অর্ধেকেরও বেশি এলাকা পানির নিচে চলে গেছে। দ্রুত পানি বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন সাধারণ মানুষজন। বন্যার পানি বাড়া অব্যাহত থাকায় যত সময় যাচ্ছে ততই সিলেট নগরের নতুন নতুন এলাকার রাস্তাঘাট তলিয়ে যাচ্ছে।  নগরের প্রায় ৬০ ভাগ বাসাবাড়ি ও দোকানে বন্যার পানিতে হাঁটুজল দেখা দিয়েছে। এতে চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন নগরবাসী।

সরেজমিনে দেখা যায়, নগরীর শাহজালাল উপশহর মূল সড়কে কোমর সমান পানি। প্রাইভেটকার,অটোরিকশা (সিএনজি) বা রিকশা দিয়ে চলাচল করা মুশকিল হয়ে দাঁড়িয়েছে। কেউ কেউ মোটরসাইকেল দিয়ে চলাচলের চেষ্টা করলেও মধ্যরাস্তায় গিয়ে পানিতে আটকে যাচ্ছেন।এমন অবস্থায় উপশহরের কয়েকটি ব্লকে দেখা মিললো নৌকা।গতকাল বিকেল থেকে নৌকা দিয়ে যাতায়াত করছেন অভিজাত এলাকার বাসিন্দারা।

ওই এলাকার বাসিন্দা শ্রাবণী দাস বলেন, কলেজের কাজে বের হয়েছিলাম।কিন্তু রাস্তায় যে পরিমাণ পানি রয়েছে তাতে গাড়ি দিয়ে যেতে পারছি না।তাই বাধ্য হয়ে নৌকা দিয়ে যেতে হচ্ছে।

সালেহ আহমদ নামে আরেকজন বলেন, এই মূহুর্তে নৌকাই আমাদের চলাচলের একমাত্র বাহন।সকাল থেকে অনেকেই নৌকা দিয়ে আসা-যাওয়া করছেন।

এদিকে উপশহর ছাড়াও নগরীর ছড়ারপার, সিলেট সার্কিট হাউস-তালতলা ভিআইপি রোডের তালতলা, সোবহানীঘাট, কলাপাড়া, শামিমাবাদ আবাসিক এলাকা,বাঁধেরমুখ, গোটাটিকর, সাদাটিক, শাপরাণ, কালিঘাট, বেতবাজার, তেরতন, শাহজালাল উপশরসহ বিভিন্ন এলাকায় পানিবন্দী রয়েছে মানুষ।




Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরও খবর










x