1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:০৭ পূর্বাহ্ন

সিসিক’র কর্মচারীর আবরণে ওরা কারা? রিকসা চালককে টেনে ছেচড়ে নির্যাতন, ভিডিও সহ

  • আপডেট সময় : শনিবার, ৫ জুন, ২০২১
  • ১৯৬ বার পঠিত

সিলেটের খোজখবর ডেস্কঃ সিসিক’র কর্মচারীর আবরণে ওরা কারা? বিভিন্ন সময়ে সিলেট সিটি করপোরেশনের হয়ে প্রতিবাদের নামে সন্ত্রাসী হামলার সাথে জড়িয়ে পড়ছেন কিছু কর্মচারী। এদের নিয়ে সচেতন মহলে চলছে তুমুল সমালোচনা।

তাদের প্রশ্ন, মেয়র কাউন্সিলর বা নগর ভবনের কর্মকর্তা কর্মচারীরা জনগনের জন্যই নিযুক্ত। সেই জনগনের বিরুদ্ধে যারা হামলার মতো জঘন্য কাজে লিপ্ত, তারা কারা? কেউ কেউ সন্দেহ করছেন, তারা একটা বিশেষ রাজনৈতিক দলের কর্মী।

টানা দু’তিন দিন সিলেট মহানগরীতে ব্যাটারিচালিত রিকশা বা অটোারিকশার বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছে সিলেট সিটি করপোরেশন। মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে এসব অভিযানে বেশ কিছু ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা জব্দও করা হয়েছে।

এতে অটোচালকদের নিয়ে একটি বাম সংগঠনের ব্যনারে মিছিলসহ বুধবার নগর ভবনের সামনে কামরান চত্ত্বরে অবস্থান নেন। জানা যায়, এসময় নগর ভবনের ফটক বন্ধ করে দিলে বিক্ষুব্ধ হয় শ্রমিকরা।

এসময় নগর ভবনের ভেতর থেকে ইট-পাটকেলের ঝড় আসে ।ঝড়ের জবাবদে শ্রমিকরাও। প্রায় ১০-১৫ মিনিটের বেশি সময় ধরে চলতে থাকে এ সংঘর্ষ।একপর্যায়ে একজন একজন রিকশা শ্রমিক রাস্তার মাঝে ফেলে মারধর করা হয়।

এরপর সিলেট মহানগর পুলিশের কোতোয়ালী থানা পুলিশ ও বন্দরবাজার ফাঁড়ির পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে অটোরিকশা চালকদের ছত্রভঙ্গ করে দেন।

এ ঘটনায় সচেতন মহলের প্রশ্ন, কেউ আইনশৃঙখলা ভঙ্গ করলে সরকারের পুলিশসহ অন্যান্য সংস্থার সদস্যরা আছেন। তারাই সেটা দেখবেন। কিন্তু তা না করে সিলেট সিটি করপোরেশনের হয়ে কারা পাল্টা হামলায় জবাব দেন? এরা কারা? তাহলে কি নগর ভবন এখন ক্যাডার নির্ভর? এই ক্যাডারদের লালন পালন করা হচ্ছে সরকার এবং নগরবাসীর ট্যাক্সের টাকায়?

এর আগে চৌহাট্টায় উচ্ছেদ অভিযানের সময়েও দেখা গেছে, নগর ভবনের কর্মচারী পরিচয়ের আড়ালে একদল ক্যাডার চালকদের উপর হামলা করেছে, ধাওয়া করেছে এবং ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেছে। বুধবার অসহায় অটোচালকদের উপরও অনুরূপ হামলা ঘটনা ঘটলো।

এ নিয়ে সচেতন মহলের বক্তব্য পরিস্কার, নগর ভবন থেকে কর্মচারী পরিচয়ের আড়ালে যারা বারবার আইন নিজের হাতে তুলে নিচ্ছেন, তারা কারা? তাদের আইনের আওতায় আনা হচ্ছেনা কেন? নাকি তারা আইনের উর্ধ্বে?

এ ব্যাপারে ছাত্রলীগ নেতা মুহিবুর রহমান তার ফেসবুকে লিখেন, মেয়র আরিফপন্থী ছাত্রদল, যুবদল, সিটি কর্পোরেশনের পরিছন্নতা কর্মী, লেবার কর্তৃক মেয়র আরিফের গুন্ডামি, সিলেট আওয়ামী লীগ ও সিলেটের প্রশাসন উভয়ের জন্য‌ই থ্রেট এবং ভবিষ্যৎ কর্মকাণ্ডের আগাম বার্তা…

ছাত্রলীগ নেতা হোসাইন আহমদলতার ফেসবুকে লিখেন,আমি বুঝলাম না, সিলেট সিটি কর্পোরেশন কি সিলেট মহানগরীর আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় কাজ করা কোন বিশেষায়িত পুলিশ স্টেশন?? সিসিকে কর্মরত কর্মকর্তা কর্মচারীরা কি পুলিশ বা আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী কোন বাহিনীর সদস্য!!

ঘটনা পর থেকেই মেইন গেইটে কয়েকজন সুঠাম দেহের লোক দেখা যায়। জন সাধারন কে ভিতরে যেতে হলে নানা ধরনের হয়রানী সহ কাগজে স্বাক্ষর করে যেতে হয়। কাগজে স্বাক্ষর দিতে অপারগতা স্বীকার করলে জনসাধারনের সাথে তারা খারাপ আচরন করে।

অফিসে কাজ করার জন্য তাদের নিয়োগ দেওয়া হয়েছে না রাস্তায় রাস্তায় এর সাথে ওর সাথে মারামারি সভা সমাবেশ মিছিলে হামলার মতো বিশেষ কাজে ব্যবহারের উদ্দেশ্যমূলক লক্ষ্য নিয়ে এদের সিসিকে ঢুকানো হয়েছে? একদিন দুইদিন হটাৎ করে ঘটা এসব সংঘর্ষ হামলা জনগণ মেনে নিতে পারে কিন্তু প্রতিদিন স্বয়ং মেয়র মহোদয়ের রীতিমতো হেলমেট পরে এসব মাস্তানী কে সহ্য করবে??

তিনি আরো বলেন মেয়র কি দেশের অন্ধকার যুগকালীন ২০০১-০৬ এর নিজেদের দোর্দণ্ড প্রতাপের নস্টালজিয়ায় আক্রান্ত!!

এ বিষয়ে বক্তব্য নিতে কয়েকবার মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর মুঠোফোনে ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

https://www.facebook.com/sylheterkujkhobor/videos/1586564608215308

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা

© All rights reserved © 2021 sylheter kuj khobor.com
Theme Customized By BreakingNews