1. admin@sylheterkujkhobor.com : admin :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ১২:৩১ অপরাহ্ন

স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনে বিএনপি নেতারা

সিলেটের খোঁজখবর
  • আপডেট সময় : রবিবার, ৭ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৬৫ বার পঠিত

চট্টগ্রাম-৩ সন্দ্বীপ আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ডা. জামাল উদ্দিনের পক্ষে অবশেষে মাঠে নেমেছে বিএনপিপন্থি নির্যাতিত নেতারা।

শুক্রবার রাত থেকে সন্দ্বীপের প্রতিনিটি ইউনিয়নে কোথাও গোপনে কোথাও প্রকাশ্যে বিএনপির সাধারণ ভোটাররা ঈগল প্রতীকের পক্ষে কাজ শুরু করেছেন।

এর আগে গত এক সপ্তাহ ধরে দীর্ঘদিন সন্দ্বীপ থেকে বিতাড়িত দুই শতাধিকের বেশি বিএনপি নেতা-কর্মী ঢাকা-চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থান থেকে সন্দ্বীপ পাড়ি জমিয়েছেন।

চট্টগ্রামে অবস্থান নেওয়া বিএনপির শীর্ষ নেতারাও সন্দ্বীপ আসনে ঈগল প্রতীকের পক্ষে মাঠে কাজ করার জন্য সাধারণ নেতা-কর্মীদের নির্দেশনা দিয়েছেন বলে সুত্র নিশ্চিত করেছে।

জানা গেছে, সন্দ্বীপের প্রতিটি বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে বিএনপি নেতারা বলছেন, ঈগল মানে ধানের শীষ। এবারের নির্বাচনে বিএনপি ভোটাররা যেন ঈগল প্রতীকে ভোট দেন সে জন্য তারা বিএনপিপন্থি নারী ও পুরুষ ভোটারদের নির্দেশনা দিচ্ছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে চট্টগ্রামে অবস্থান নেওয়া যুবদলের একজন শীর্ষ নেতা যুগান্তরকে বলেন, তিনি গত ১৪ বছর ধরে সন্দ্বীপ যেতে পারছেন না। তার বিরুদ্ধে বর্তমান এমপি ১ ডজনের বেশি মামলা করেছেন। বিএনপির শতশত নেতাকর্মীদের মারধর করে ঘরবাড়ি ছাড়া করেছেন। তাই তারা ইতোমধ্যে বিএনপিপন্থি ভোটারদের নির্দেশনা দিয়েছেন ঈগল প্রতীকে ভোট দিতে।

ওই নেতা আরো বলেন, সন্দ্বীপ একটি বিএনপি অধ্যুষিত অঞ্চল। কিন্তু বর্তমান এমপি ক্ষমতায় আসার পর থেকে পুরো সন্দ্বীপজুড়ে বিএনপি নিধন কার্যক্রম শুরু করে। কোন ছেলে যদি বিএনপি বা যুবদল করছে তাহলে তার পুরো পরিবারকে তিনি সন্দ্বীপ থেকে বিতাড়িত করেছেন। বিএনপিপন্থি নারীদের ওপরও চরম নির্যাতন হয়েছে গত ১০ বছরে। এসময়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ১ হাজারের বেশি মামলা হয়েছে সন্দ্বীপে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে সারিকাইত এলাকার এক প্রভাবশালী বিএনপিপন্থি ইউপি মেম্বার যুগান্তরকে বলেন, তারা ইতোমধ্যে পুরো সন্দ্বীপে তাদের নেতা কর্মীদের জানিয়ে দিয়েছেন ঈগল মানে ধানেরশীষ। তারা যেন সে হিসাবে ভোট কেন্দ্রে গিয়ে ঈগল প্রতীকে ভোট দেন।

ওই মেম্বার আরো বলেন ডা. জামাল নির্বাচিত হলে তিনি সন্দ্বীপে সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে সন্দ্বীপের উন্নয়নের কাজ করবেন। কারো বিরুদ্ধে কোন অ্যাকশন নেওয়া হবে না। সবাই নিজ নিজ বাড়িতে থেকে স্ব স্ব দলের জন্য কাজ করতে পারবেন। কারো উপর অত্যাচার জুলুম নির্যাতন করা হবে না। কারো বিরুদ্ধে কোন ধরনের রাজনৈতিক মামলা হবে না। এসব কারণে সন্দ্বীপের বিএনপিপন্থি সাধারণ ভোটাররা আশ্বস্থ হয়ে ঈগল প্রতীকের পক্ষে কাজ করছেন।

অপর দিকে বর্তমান এমপি ফের ক্ষমতায় আসলে সন্দ্বীপ জুড়ে রক্তের বন্য বয়ে যাবে। শুধু বিএনপি পন্থিরাই নয়, আওয়ামীলীগেরও হাজার হাজার নেতা-কর্মীকে ঘর ছাড়া করা হবে। প্রশাসনের শীর্ষ পর্যায়ের কর্মকর্তারাও ঠিকভাবে তাদের মান সম্মান নিয়ে কাজ করতে পারবেন না সন্দ্বীপে। এই এমপি সবাইকে তুই তোকারী, তুচ্ছতাচ্ছিল্য করেন।

খোজ নিয়ে জানাগেছে সন্দ্বীপের উড়ির চর, কালাপানিয়া, নেমস্থি, সন্তোষপুর, হারামিয়া, বাউরিয়া, মুছাপুর, পৌরসভা, রহমতপুর, সারিকাইত, মগধরা, ধোপারহাট, আকবর হাট ও মাইটভাঙ্গা এলাকায় বিএনপির ভোটার সবচেয়ে বেশি। এসব এলাকায় শুক্রবার রাতভর বিএনপিপন্থি নেতারা ঈগল প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী প্রচারনা চালিয়েছেন।




Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর










x